সাইকোলজিকাল শক্তি বাড়ানোর সিনেমা

সাইকোলজি আমার খুবই প্রিয় একটি বিষয়। এ বিষয়টা নিয়ে বই পড়তে কিংবা মুভি দেখতে ভালো লাগে। মাঝে মাঝে মানব মনের গতি প্রকৃতি নিরীক্ষা করতে ভালো লাগে। তাই সাইকোলজিকাল উপাদান আছে এমন মুভি কখনও মিস করি না। এই মুভিগুলো মানুষের আচরণ বা সাইকোলজি বুঝতে খুবই সহায়ক। এছাড়া অসাধারণ টুইস্ট এন্ডিং মুভির তালিকা শেয়ার করলাম। যে মুভিগুলোর শেষটা দেখে মুখ হা করে থাকতে হয়। প্রচন্ডরকম শকও খাবেন। মুভিগুলোর তালিকার সাথে হালকা মতামত কিংবা রিভিউও দিলাম।

৩০. The Exam

সময় আশি মিনিট। একটি প্রশ্নের উত্তর। আর কিছু অদ্ভুত নিয়ম বলে পরিদর্শক চলে যায়। থেকে যায়
পিস্তলধারী একজন গার্ড এবং সেই আটজন ক্যান্ডিডেট। পরীক্ষার রুমটি একদম বদ্ধ। কোন জানালা নেই। খালি আছে প্রবেশ করার জন্য একটি মাত্র দরজা। আর রুমের ভেতর আটটি ডেস্ক ও চেয়ার রাখা।
সেই ডেস্কের উপর তাদের ক্যান্ডিডেট নাম্বার আর একটি করে পেন্সিল রাখা। অসাধারণ একটা সাইকোলজিক্যাল থ্রিলার।

২৯. One flew over the cuckoo’s Nest

কমেডি মুভি দেখে হয়তো অনেক বার হেসেছেন। কিন্তু কখনো কি এমন হয়েছে সিনেমা দেখে আপনি হেসেছেন, আর সেই প্রতিটি হাসিতেই মিশে ছিল কান্না,সহানুভূতি কিংবা জয়ের অনুভূতি? কিংবা পুরো সিনেমা হাসার পর শেষ দৃশ্য দেখে আপনি আর সেই সিনেমাটিকে কমেডি সিনেমা বলতে রাজি নন? যদি এমন সিনেমা না দেখে থাকেন দেখতে বসে যান এই সিনেমাটি।

২৮.Triangle

এই মুভিটি দুবার দেখেই তবেই বুঝেছি কাহিনী। শুধু এটাই বলবো,মুভির শেষটা দেখে আপনার মাথা ঘুরে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে।

২৭.Miracle in cell no 7

কোরিয়ান মুভি। একজন মানসিক প্রতিবন্ধী বাবা এবং তার ছোট্ট মেয়ের গল্প। খুবই টাচিং এবং ইমোশনাল একটা মুভি। এই মুভির শেষটা দেখে চোখে পানি না এলে আপনি মানুষই না।

২৬.The Machinist

কারখানার একজন কর্মচারী এক বছর ধরে ঘুমায় নি। কেন ? উত্তরটা জানতে হলে মুভিটি দেখতে হবে।

২৫. Identity

একটি বৃষ্টির রাত। একটি মোটেল। দশ জন লোক। দশটা খুন। লাশের কাছে ট্যাগ। সেই সাথে একটার পর একটা সত্য উন্মোচন। শেষ পর্যন্ত আপনিও জানবেন সত্যটা কি। সেখানে চমকের সাথে অপেক্ষা করছে আক্ষেপ।কিছুই যে আর করার নেই।

২৪. The game

প্রচন্ডরকমভাবে মানসিক ধাক্কা পেতে চাইলে এটা দেখতে পারেন।

২৩.Matchstick Men

রয় এবং ফ্রাঙ্ক একে অপরের পার্টনার। দুজন একইসাথে কাজ করে। হঠাৎ একদিন রয় এর সাথে অনেক আগে আলাদা হয়ে যাওয়া তার প্রাক্তন স্ত্রীর মেয়ের সাথে দেখা হয়। প্রথমে বিরক্ত হলেও আস্তে আস্তে সন্তানের প্রতি ভালোবাসা সে বেশ উপভোগ করতে থাকে। কিন্তু একদিন এক বড় বিপদজনক কাজে সে মেয়েকে নিয়ে ফেসে যায়। তার মেয়ের জীবন হুমকির মুখে পড়ে শুধু তারই জন্য। আর এরপর!!! ধাম করে এলো টুইস্টটা। কল্পনাও করতে পারিনি।

২২.Dead Silence

আপনি পুতুল পছন্দ করেন? আমিও করতাম। এই মুভি দেখার পর এখন পুতুল ভয় পাই। অবাক হওয়ার কিছু নেই। সেই তালিকায় আপনিও যেতে চলেছেন এই মুভি দেখার পর। আর টুইস্টটা? সেটা জানার জন্য দেখতে হবে।

২১.The Orphanage

এটি একটি স্প্যানিশ হরর মিস্ট্রি থ্রিলার মুভি। অসাধারণ কাহিনীনির্ভর হরর মুভি। শেষের কয়েকমিনিট এখনো ভুলতে পারিনি।

২০.The Illusionist

কাহিনীর পটভূমি ১৯০০ সাল। ভিয়েনার এক ম্যাজিশিয়ান আইজেনহাইম প্রেমে পড়ে সোফির। যে কিনা সামাজিক মর্যাদায় তার থেকে অনেক উঁচু অবস্থানের। সোফির বিয়ে ঠিক হয় রয়্যাল হাউজের প্রিন্সের সাথে। ইল্যুসনিস্ট কি পারবে পুরো দুনিয়ার সামনে কোন ইল্যুসন তৈরী করতে? শেষর দৃশ্য দেখে বুঝতে পারবেন আপনি এতক্ষণ আসলেই ইল্যুশনের ভিতরে ছিলেন।

১৯.Primal Fear

১৮-১৯ বছর বয়সের এক ছেলের উপর অভিযোগ উঠেছে সে নাকি তার আশ্রয়দাতা ধর্মযাজককে খুন করেছে। একজন নামকরা আইনজীবী যিনি সবসময় স্পটলাইটে থাকতে চান ছেলেটির পক্ষে এই কেসটি হাতে নেন। পরে গল্পটি সামনের দিকে এগুতে থাকে। ছেলেটি কি আসলেই খুন করেছে? নাকি সে নির্দোষ? আবার খুন করলে কে করেছে? কারন খুনের পর পুলিশ একমাত্র ঐ ছেলেটির রুমে অবস্থানের আলামত
খুজে পেয়েছে। এই সবের উত্তর জানার জন্য আপনার মুভির একদম লাস্ট মিনিট পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। আর টুইস্ট তো আছেই।

১৮.Orphan

এই মুভি সম্পর্কে কিছু বলা যাবেনা। বললেই হয়তো রহস্যটা ভেঙ্গে যাবে। অসাধারণ একটা মুভি।

১৭.Montage

১৫ বছর আগে একটি ছোট মেয়েকে অপহরণ করা হয়। মেয়েটাকে মৃত উদ্ধার করা হয়। কিন্তু অপরাধীকে ধরা যায় না।১৫ বছরেও এই রহস্যের কূল-কিনারা করা যায় নি। কিন্তু এখানেই শেষ নয়। আবার সেই অপরাধীর অস্তিত্ব প্রকট হয়ে ওঠে। ১৫ বছর বাদে আবারও একটি শিশু অপহরণ হয়। ১৫ বছর আগে যেভাবে অপহরণ করা হয়েছিল সেই একই ভাবে এবারও অপহরণ করা হয়।গোয়েন্দাদের
পাশাপাশি এবার মাঠে নামে সেই মা যে ১৫ বছর আগে তার মেয়েকে হারিয়েছিল। সে তার মত করে রহস্য উদঘাটন করতে থাকে।পাশাপাশি গোয়েন্দাদের তথ্য দিয়ে সাহায্য করতে থাকে। আর সবশেষে দেখা যায় এক বিরাট চমক।

১৬.Old boy

একজন লোককে অপহরণ করা হয়। পনের বছর তাকে একটা রুমে বন্দী করে রাখা হয়। কিন্তু কেন? মুভিটির শেষে যে টুইষ্টটি আছে তা আপনার পক্ষে সহ্য করা অসম্ভব! এই শক কোনো মনুষ্যপ্রানীর পক্ষেই সহ্য করা সম্ভব নয়।

১৫.The Prestige

ক্রিস্টোফার নোলানের মুভি। যারা ম্যাজিক পছন্দ করেন তারা দেখতে পারেন। মাথা হ্যাং করা একটা মুভি।

১৪.No Mercy

প্রতিশোধ??
মুভিটি দেখলেই বুঝতে পারবেন প্রতিশোধ কাকে বলে? কত প্রকার? আর কী কী?
মুভির শেষাংশ দেখে খুব শক এবং খারাপ লেগেছিল।

১৩.Incendies

১+১ কত হয়? উত্তর হলো ২। কিন্তু কখনো কখনো আসলেই ১+১ = ১ হয়। কিন্তু কিভাবে?
সেটা মুভি দেখেই জানতে হবে।

১২.Psycho

আলফ্রেড হিচককের একটা অসাধারণ সাইকো থ্রিলার মুভি। রবার্ট ব্লচের সাইকো বই অনুসারে মুভিটা
হয়েছে। এই সাড়াজাগানো মুভি সাইকোর একদম শেষে রয়েছে দারুণ একটি টুইস্ট। পরিচালক নিজে
এই টুইস্টটি এতো পছন্দ করে ফেলেছিলেন যে তিনি চাননি কোন অবস্থাতেই চলচ্চিত্রটি বের হওয়ার আগে কেউ তা জেনে যাক। ফলাফল, বইটির সম্ভাব্য সব কপি চলে আসে হিচককের ঘরে!

১১.Fight Club

এটা এমন একটা মুভি শেষ দৃশ্য না দেখলে বোঝাই যাবে না মুভিটা কতখানি টুইস্ট। ২০১৪ সালে দেখা মুভিটি শেষ দৃশ্যের কারণে এখনো আমার স্মরণে আছে।

১০.Shutter Island

ধরুন,আমি আপনার সাথে গল্প করতে করতে আপনাকে আমার প্রতি এমন আচ্ছন্ন করে ফেলছি যে আমার প্রতি এক ভাল লাগা ও সিম্প্যাথি তৈরি হল আপনার। এমন এক পর্যায়ে হঠাৎ আপনাকে এক থাপ্পড় মেরে আমার জাত চিনালাম। আপনি যেমন হচকিয়ে যাবেন তেমনি এই মুভির শেষ পর্যায়ে পরিচালক আপনাকে এক থাপ্পড় মেরে মুভিকে ইউ টার্ন করে হচকিয়ে দিবে।

৯.The Others

একজন সাধারণ মহিলার গল্প। নিজের দুসন্তান নিয়ে সে পুরনো একটি বাসায় থাকে। সুন্দরভাবেই চলছিলো তাদের জীবন। হঠাৎ সেই বাসায় অদ্ভূত ঘটনা ঘটতে শুরু করে। প্রথমে কিছুই বুঝতে পারছিলো না কেউই। পরে ধারণা করতে থাকে এই বাসায় আত্মার আনাগোণা আছে। জটিল হতে থাকে ঘটনা।
তারপর !!!
শেষের টুইস্টটা এমন যেটা আপনি কখনো কল্পনাও করতে পারবেন না।

৮.The Sixth Sense

এই মুভির শেষটা দেখে না চমকালে আপনি মানুষই না।

৭. Sev7en

এটা সর্বকালের সেরা ১০টা সিরিয়াল কিলিংমুভির তালিকায় অবশ্যই থাকবে। এতে কোন সন্দহ নাই। সিরিয়াল কিলিং এবং সাইকোলজিক্যাল কিছু বিষয় মিশিয়ে মুভিটিকে অসাধারণ করে তুলেছে।

৬.Inception

স্বপ্ন। স্বপ্নের ভিতরে স্বপ্ন। স্বপ্নের ভিতরে স্বপ্ন। আবার স্বপ্নর ভিতরে স্বপ্ন। নোলানের আরেকটা অসাধারণ মুভি। মুভির শেষ দৃশ্য দেখে হা হয়ে থাকবেন।

৫.Predestination

টাইম মেশিন নিয়ে মুভি। সাধারণত মুভি শেষে থাকে টুইস্ট। এই মুভির পরতে পরতে টুইস্ট। টুইস্টের পর টুইস্ট।

৪.Memento

আমরা সাধারণড মুভি দেখি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত। কিন্তু এই মুভিটাই দেখতে হবে শেষ থেকে শুরু পর্যন্ত! ভাবছেন, কি আবোল-তাবোল বলছি!!!!
সত্যি বলছি! মুভিটি চলে ব্যাকওয়ার্ডে!! অর্থাৎ শেষ দৃশ্য দেখায় একদম প্রথমে!!
যারা নোলানকে চিনেন তারা জানেন নোলান কেমন। তার মুভি মানেই এক অন্যরকম মজা!! তার মুভির শেষে এমন টুইস্ট দেখা যায় যা কেউ কল্পনাও করতে পারে না। মুভির শুরুতেই দেখা যাবে লিওনার্ড
একজনকে খুন করে!! কি চমৎকার সুচনা। কিন্তু কেন??? তা জানা যাবে ধীরে ধীরে।
মুভির শেষটা ( নাকি শুরু বলবো!!) দেখে মাথা ঘুরে যাবে। প্রথমবার দেখে নাও বুঝতে পারেন। তাই আরেকবার দেখুন। আর মাথা হ্যাং করুন।

৩.Witness For The Prosecution

সাদাকালো এবং কোর্টরুম মুভি। আমার খুব পছন্দের জনার। এই মুভির শেষটা কল্পনাও করা অসম্ভব। সত্যি বলছি,আপনি শেষ দৃশ্য না দেখে শেষ দৃশ্যটা কল্পনাই করতে পারবেন না। আমি তো টুইস্টটা দেখে বেকুব হয়ে গেছিলাম।

২.The Shawshank Redemption

নিজ স্ত্রীকে খুন করার অপরাধে একজন ব্যাংকারের শাস্তি হিসেবে জেলে পাঠানো হয়। সেই জেলে এসে কয়েকজন আসামীর সাথে তার বেশ ভালো বন্ধুত্ব হয়ে যায়। জীবন সম্পর্কে অন্যরকম কিছু ধারণা পায় সে। ঘটনা এগিয়ে যেতে থাকে। তারপর একসময়……..
কখনো ভাবিনি এরকম কিছু ঘটবে। অসাধারণ ফিনিশিং।

১.The Usual Suspects

একজন মানুষ আহত অবস্থায় কোনো মতে পড়ে আছে সান পেদ্রো উপসাগরের একটি জাহাজে। বহু কষ্টে তিনি জীবনের শেষ সিগারেটটি জ্বালাতে সক্ষম হন। কিন্তু দুর্ভাগ্য তার। সিগারেটটি শেষ করতে দিলো না। এরপর শোনা যায় ২টি গুলির শব্দ এবং তার সাথে জ্বলে উঠে বিশাল জাহাজটি। এটাই আমার দেখা সেরা টুইস্ট এন্ডিং মুভি। সবসময় এটা এক নম্বরে থাকবে।

You may also like...

Leave a Reply