ভ্রমণের সময়ে যা জেনে না নিলেই নয়

১। আপনার সফরের সময়টা ভাল করে খেয়াল করবেন। রাত বারোটার পর তারিখ বদলে যায় সেটা খেয়াল রাখবেন। ধরুন 5th August রাত বারোটা দশে আপনার ফ্লাইট। মনে রাখবেন আপনাকে 4th August রাত দশটার মধ্যে এয়ারপোর্ট পৌঁছতে হবে। 25th August রাত দশটাতে এয়ারপোর্ট পৌঁছালে আপনার ফ্লাইট অন্তত বাইশ ঘন্টা আগে ফুরুৎ হয়ে গেছে। এই ভুলটা অনেকের হয়।

২। প্লেনে সফর করলে আপনার লাগেজে কোনো ধরণের স্টিকার বা একটা চিহ্ন লাগিয়ে রাখুন যাতে কনভেয়ার বেল্টে আপনার লাগজকে আপনি চট করে চিনতে পারেন। আমার একবার এমন হয়েছিল। নিজের কালো সুটকেসকে নিজেই চিনতে পারছিলাম না। দুই চক্কর খেয়ে যখন সুটকেসটা লাওয়ারিশের মতো আবার করে আমার সামনে দিয়ে দুলে দুলে যাচ্ছিল তখন মনে হলো এটাই আমার সুটকেস না তো ? নিতে ভয় হচ্ছিল যদি ভুল সুটকেস হয় তাহলে আমাকে চোর টোর ভেবে বসবে না তো ? তারপর থেকে আমার সব লাগেজর হ্যান্ডেলে একটা করে লাল সাটিনের রিবন বেঁধে রাখি।

৩। কিছু প্রয়োজনীয় জিনিস নিতে ভুলবেন না..যেমন টর্চ, তালা চাবি, ছোট্ট একটা ছুরি, একটা পুরোনো নিউজ পেপার , পলিথিন ব্যাগ , মোবাইল চার্জার , পাওয়ার ব্যাঙ্ক, কিছু শুকনো খাবার..বিস্কুট, চানাচুর, চিপস জাতীয়।

৪। যথাসাধ্য কম মালপত্র নিয়ে ভ্রমণ করুন। এই লটবহর অনেক সময় ভ্রমণের আনন্দ মাটি করে।

৫। টাকাপয়সা বিভিন্ন জায়গায় রাখুন। সব টাকা সুটকেসে রেখে দেবেন না। নিজের বিভিন্ন পকেটে রাখুন। একটা চোরা পকেট অবশ্যই রাখবেন। পরিবারের সবার কাছে অল্প অল্প টাকা দিয়ে রাখবেন।

৬। টাকাপয়সা পর্যাপ্ত পরিমাণে রাখুন। যে বাজেট নিয়ে বেরিয়েছেন তার থেকে বেশী টাকা সঙ্গে রাখুন। বিপদে পড়লে কাজে লাগবে আর যদি না লাগে তাহলে তো ফেরতই আসবে। এটিএম কার্ড / ডেবিট কার্ড ছাড়াও ক্যাশ সাথে রাখুন।

৭। জের আইডেন্টিটি কার্ড, আধার কার্ড সবসময় সঙ্গে রাখবেন। আপনার সাথে যদি পরিবার থাকে তাদের আইডেন্টিটি কার্ডও সঙ্গে রাখুন।

You may also like...

Leave a Reply