জেনেনিন কিছু অ্যাপের নাম , যেগুলো আপনাকে 5G গতিতে কজ করতে সাহায্য করবে ।

আমি এখানে ব্যক্তিগতভাবে কিছু অ্যাপের পরিচয় দেব যেগুলি আমাকে আমার কাজে সাহায্য করে থাকে।

যেহেতু আমরা প্রায় প্রত্যেকেই টেকনোলজির সাথে জীবনযাপন করছি, সেই হিসেবে টেকনোলজিকে যতটা বেশি পরিমাণে ব্যবহার করতে পারব ততটাই আমাদের জীবনে গতি আসবে।

  1. Google Keep: এই অ্যাপটিতে আমি আমার সারাদিনের কাজের একটা তালিকা করে রাখি। প্রয়োজনে রিমাইন্ডার সেট করে রাখা যায়। টিক বক্স অপশনে গিয়ে হয়ে যাওয়া কাজগুলি টিক করে দিলে সেটা নীচে চলে যায় এবং যেগুলো বাকি আছে সেগুলো দেখায়।
  2. WPS Office: এটি মাইক্রোসফট অফিসের বিকল্প অফিস। মোবাইল ইভেন আমার পিসিতেও ব্যবহার করি। এর পিডিএফ রিডারটা অসাধারণ।
  3. Microsoft Launcher: মোবাইলের লঞ্চার হিসেবে আমি মাইক্রোসফট লঞ্চার ব্যবহার করি। এটাতে অ্যাপগুলোকে সুন্দরভাবে অরগানাইজ করে রাখা যায়। সেইসাথে ফোল্ডার বানিয়ে তার ভেতরে রাখলে সেই অ্যাপগুলি আর অন্য কোথাও দেখায় না। এর আরো একটি ছোট্ট কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ সুবিধা হচ্ছে এতে সারাদিন কতক্ষণ মোবাইল ব্যবহার করেছি সেটা দেখায়। এর জন্য আগে আলাদা অ্যাপ ব্যবহার করতাম কিন্তু এখন মাইক্রোসফট লঞ্চার ব্যবহারের সুবিধার্থে আর করতে হয় না।
  4. bkash : অর্থনৈতিক লেনদেনের ক্ষেত্রে আমার হিসেবে এই অ্যাপটিই সেরা। এখানে ইলেক্ট্রিক বিল থেকে টাকা পাঠানো, গাড়ি বুক থেকে খাবার অর্ডার সব করা যায়।
  5. Phonto: লেখাযুক্ত ছবি তৈরি করার জন্য আমার ব্যবহারকৃত সেরা অ্যাপ।
  6. GBoard: গুগলের সেরা কিবোর্ড। বাংলা ভয়েস টাইপ হোক বা ইংরেজি, এরসাথে আমি অভ্যস্থ হয়ে গেছি। এর কিবোর্ডের আরো সুবিধা এখানে টাইপ করার সময়েই সার্চ করা যায় এবং সেগুলো শেয়ার করা যায়।
  7. Wynk: গানশোনার জন্য ব্যবহার করে থাকি। এর ইন্টারফেস অত্যন্ত ইউজার ফ্রেন্ডলি এবং অলমোস্ট সমস্ত গান পাওয়া যায়। এছাড়া এয়ারটেল নিজস্ব অ্যাপ হওয়ায় ফ্রি ডাউনলোড করে রাখা যায়, যে সুবিধা ইভেন জিও এর Saavn-এ নেই।

You may also like...

Leave a Reply